বাণিজ্য মেলায় সেরা ভ্যাট দাতার সম্মাননা পেয়েছে ১০ প্রতিষ্ঠানবন্দরে পণ্য আসার ৩ দিনের মধ্যে কাগজপত্র জমা না দিলে জরিমানাঢাকা ট্যাকসেস্ বার এসোসিয়েশন ২০২০-২০২১ এ ইকবাল সভাপতি ও মামুন সম্পাদক নির্বাচিতপুঁজিবাজারে আসছে রবি, শেয়ার ছাড়বে ৫২ কোটিকর বাড়ার পর মুঠোফোনের অবৈধ আমদানি বাড়ছে: বিএমপিআইএ
No icon

পেপারলেস রাজস্ব ব্যবস্থপনায় থাকবে না ঘাটতি

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের ব্যবস্থাপনা পেপারলেস করতে পারলে একদিন রাজস্ব আদায়ে ঘাটতি থাকবে না বলে মনে করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। রোববার রাতে কাস্টমস দিবসে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় এনবিআর আয়োজিত সেমিনার ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। অর্থমন্ত্রী বলেন, রাজস্ব বিষয়ক সকল আইন সহজ করা হবে। ডিজিটালাইজেশনের ধারাবাহিকতায় সব বন্দরে স্ক্যানিং মেশিন বসানো হবে। আশা করছি একদিন এনবিআরের পুরো কার্যক্রম পেপারলেস হবে। এটা করতে পারলে রাজস্ব আদায়ে ঘাটতি থাকবে না। সাধারণ মানুষকে প্রাধান্য দিয়ে রাজস্ব আদায় করবো। শূল্ক বিষয় যে কোন সিদ্ধান্ত হবে সকলের জন্য সহনীয়। এতে অন্য দেশেও আমাদের পণ্য ভাল বাজার পাবে। অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, বাণিজ্য সহজ হলে রাজস্ব আদায় বাড়বে। দেশের উন্নয়ন হবে। আমাদের যে সম্পদ আছে তার সম্পূর্ণ ব্যবহার করতে হবে।

অর্থমন্ত্রী আশা প্রকাশ করে বলেন, আগামী পাঁচ বছরে রাজস্ব আদায় কয়েকগুণ বাড়বে। এতে দেশে উন্নয়ন গতিশীল হবে। সব বন্দরে স্ক্যানিং মেশিন বসানো হবে। ব্যবসা বাড়ানোর জন্য বন্দরে পণ্য জট কমাতে হবে। বন্দর গতিশীল করতে এনবিআরকে বিশেষ নজর দিতে হবে।

বিশেষ অতিথি হিসাবে বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশি, প্রধান মন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান এবং দেশের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি ফজলে ফাহিম প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, মানুষের মধ্যে কাস্টমস সম্পর্কে একটা ভীতি রয়েছে। অনেকটা সহজীকরণ হয়েছে, আরো সহজীকরণ দরকার। মানুষ যাতে হয়রানির শিকার না হয়। সেদিকে বেশি নজর দিতে হবে।

ড. মশিউর রহমান বলেন, কোন দেশে অর্থপাচার এবং বাণিজ্য একই সঙ্গে চলতে থাকলে সে দেশের প্রতি নেতিবাচক ধারণা তৈরী হয়। বাংলাদেশ যেন এ বিষয়ে সুনামে সঙ্গে কাজ করতে পারে এজন্য এনবিআরকে সর্তক থাকতে হবে। এক টাকার রাজস্ব আদায়ের জন্য যদি একশ টাকার উৎপাদন নষ্ট হয় তবে তা ঠিক হবে না। তাই রাজস্ব বিষয়ক আইন প্রণয়ের ক্ষেত্রেও সর্তক থাকতে হবে। বন্দরে যদি জটলা সৃষ্টি হলে তাহলেও বাণিজ্য নষ্ট হয়। ব্যবসা বাণিজ্য গতিশীল করতে আধূনিক শূূল্ক আইন প্রয়োজন।

অনুষ্ঠানে এনবিআর চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিম সভাপতিত্ব করেন। বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এনবিআরের উদ্যোগে ১৮৩টি দেশের সঙ্গে বাংলাদেশেও আর্ন্তজাতিক কাস্টমস দিবস পালিত হয়।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, দেশের উন্নয়নের জন্য রাজস্ব প্রয়োজন। রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্য অর্জনে এনবিআর কাজ করে যাচ্ছে। কাস্টমস্ বাণিজ্য বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে দেশের মধ্যে ক্ষতিকর পণ্য আমদানি বন্ধেও কাজ করছে।