এনআইডি যাচাইসহ বিডার ওএসএসে যুক্ত হচ্ছে ৩ সেবাস্বয়ংক্রিয় চালানের পরীক্ষামূলক যাত্রা শুরু এ মাসেইভেস্তে যেতে চলেছে অনলাইনে রিটার্ন জমাএকক ব্যক্তি কোম্পানি খোলার সুযোগ রেখে আইন অনুমোদনরাজস্ব ঘাটতি ৮২ হাজার কোটি টাকা: এনবিআরের চূড়ান্ত হিসাব
No icon

একক ব্যক্তি কোম্পানি খোলার সুযোগ রেখে আইন অনুমোদন

ব্যবসা ও বিনিয়োগ বাড়াতে এক ব্যক্তির কোম্পানি ব্যবস্থার বিধান রেখে কোম্পানি (দ্বিতীয় সংশোধন) আইন, ২০২০-এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রীসভা। প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে সোমবার (২০ জুলাই) গণভবনে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠককে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রক্রিয়া সহজ করতে সংশোধিত আইনে এক ব্যক্তির কোম্পানি নিবন্ধন ব্যবস্থাপনার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে শেয়ার হস্তান্তরের ক্ষেত্রে শেয়ার হোল্ডারধারী পাওয়ার অব অ্যাটর্নির মাধ্যমে শেয়ার হস্তান্তর করতে পারবেন। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের এই অনুমোদনের কথা জানান। তিনি বলেন, এখন এক ব্যক্তি কোম্পানি হবে, এটা আমাদের পারসেপশনে ছিল না। এটা আমাদের কাছে বিভিন্ন দিক থেকে প্রস্তাব আসছে এক ব্যক্তিকে কোম্পানি হিসেবে নিবন্ধন করা হলে অনেক বিনিয়োগ আসবে।

প্রস্তাবিত আইনের সংজ্ঞা অনুযায়ী, এক ব্যক্তি কোম্পানি হলো সেই কোম্পানি, যার বোর্ডে সদস্য থাকবেন কেবল একজন।

এক ব্যক্তি কোম্পানির নিবন্ধন, পরিচালনা ও বিধি-বিধান সংশোধিত আইনে অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, শেয়ার হস্তান্তরের ক্ষেত্রে হস্তান্তরকারীর ব্যক্তিগত উপস্থিতি ও কমিশনের মাধ্যমে হস্তান্তর দলিলে স্বাক্ষর নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি বলেন, কোম্পানি উঠে গেলে পাওনাদারদের ঋণ পরিশোধে অগ্রাধিকার দিতে হবে। আমরা দেখেছি যখন কোম্পানি উঠে যায় তখন পাওনাদাররা ঘুরে বেড়ান।

কোম্পানি আইন সংশোধন করে অনলাইনের মাধ্যমে নিবন্ধনের বিধান রাখা হচ্ছে বলেও জানান খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, সংশোধিত আইনে অনলাইনে যেনো রেজিস্ট্রেশন করা যায়, সেটি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এখনকার বিধান অনুযায়ী ১৪ দিনের নোটিশে বোর্ড মিটিং হয়, কিন্তু বিনিয়োগকারীদের অনুরোধে সেটি বাড়িয়ে ২১ দিন করা হয়েছে। কারণ, অনেকে দেশের বাইরে থাকেন, তাদের ভিসাসহ নানা বিষয় রয়েছে। বিদেশি বিনিয়োগকারীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতেই মূলত এটি করা হয়েছে।