চলতি বছরে মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৮ দশমিক ৫৭ শতাংশেআগামী ২০২৩-২৪ অর্থবছরে চলতি বছরের লক্ষ্যমাত্রার অতিরিক্ত ৬৫ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আয় করতে হবে ঋণদাতাদের আশ্বস্ত করতে জামানত হিসেবে তাদের স্টক দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে আদানি গোষ্ঠীরাজস্ব খাতে সংস্কার এখন অপরিহার্য হয়ে গেছেবাংলাদেশ প্রবৃদ্ধির পালে হাওয়া লেগেছে: টাইম ম্যাগাজিন
No icon

পাঁচ মাসে এনবিআরের রাজস্ব আদায় বেড়েছে ১৩ শতাংশ

চলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রথম পাঁচ মাসে (জুলাই-নভেম্বর) এনবিআরের রাজস্ব আদায় হয়েছে ১ লাখ ১৫ হাজার ৬২০ কোটি ৭৭ লাখ টাকা। এটি গত অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে ১৩ দশমিক শূন্য ৬ শতাংশ বেশি। গত অর্থবছরের একই সময়ে এসেছিল ১ লাখ ২ হাজার ২৬৪ কোটি ৮২ লাখ টাকা।চলতি অর্থবছরের পাঁচ মাসে নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৯ হাজার ৭১৩ কোটি টাকা পিছিয়ে রয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। ওই সময়ে লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১ লাখ ২৫ হাজার ৩৩৪ কোটি টাকা। চলতি অর্থবছরে মোট ৩ লাখ ৭০ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে সংস্থাটির।চলতি অর্থবছরের পাঁচ মাসে আমদানি-রপ্তানি পর্যায়ে রাজস্ব এসেছে ৩৮ হাজার ৬০ কোটি টাকা। গত অর্থবছরের একই সময়ে যা ছিল ৩৩ হাজার ৮১৯ কোটি টাকা। সে হিসাবে এ খাতে প্রবৃদ্ধি দাঁড়িয়েছে ১২ দশমিক ৫৪ শতাংশ। তবে এ খাত থেকে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৬ হাজার ৫৩৬ কোটি টাকা কম আদায় হয়েছে।

স্থানীয় পর্যায়ে মূল্য সংযোজন কর (মূসক) খাত থেকে পাঁচ মাসে রাজস্ব আদায় হয়েছে ৪৪ হাজার ১৮৩ কোটি ৮৩ লাখ টাকা। গত অর্থবছরের তুলনায় এ খাতে প্রবৃদ্ধি দাঁড়িয়েছে ১৬ দশমিক ১৮ শতাংশ। তবে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৯৯৩ কোটি টাকা কম আয় হয়েছে। এ ছাড়া আয়কর ও ভ্রমণকর খাত থেকে পাঁচ মাসে রাজস্ব এসেছে ৩৩ হাজার ৩৭৬ কোটি ৯৪ লাখ টাকা। এ খাতে প্রবৃদ্ধি দাঁড়িয়েছে ৯ দশমিক ৭৪ শতাংশ। তবে আদায় লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২ হাজার ১৮৪ কোটি টাকা কম।একক মাস হিসেবে নভেম্বরে রাজস্ব আদায় হয়েছে ২৪ হাজার ৭০৩ কোটি টাকা। আগের অর্থবছরের একই সময়ে আদায় হয়েছিল ২২ হাজার ৬৪২ কোটি টাকা। এ হিসাবে গত মাসে রাজস্ব আদায়ের প্রবৃদ্ধি ৯ দশমিক ১০ শতাংশ। তবে লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় কম হয়েছে রাজস্ব আদায়। নভেম্বরে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২৮ হাজার ২৮ কোটি টাকা। সে হিসাবে লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ১১ দশমিক ৮৬ শতাংশ কম হয়েছে রাজস্ব আদায়।