এখন থেকে যেকোনও কোম্পানির আর্থিক হিসাব যাচাই করতে পারবে এনবিআর টেকসই অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারে ২১২৫ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে এডিবিগ্রামীণ ব্যাংকের ৬৭ কোটি টাকার ভ্যাট ফাঁকিআপাতত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৫% আয়কর নেওয়া যাবে নাসৌদি আরবের বাজারে শুল্কমুক্ত সুবিধা চায় বাংলাদেশ
No icon

মোংলাবন্দরে ট্রানজিট সুবিধা চায় নেপাল

বাংলাদেশের সঙ্গে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যের অংশীদারী হয়ে মোংলা বন্দর ব্যবহার করতে চায় প্রতিবেশী দেশ নেপাল। এ লক্ষ্যে বাংলাদেশে নিযুক্ত নেপাল হাই কমিশনের ডেপুটি চিফ অব মিশন কুমার রাইয়ের নেতৃত্বে নেপালের একটি প্রতিনিধি দল বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে বন্দর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। মোংলাবন্দর কর্তৃপক্ষ এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

মোংলাবন্দর কর্তৃপক্ষের সদস্য (হারবার ও মেরিন) ক্যাপ্টেন এম. আব্দুল ওয়াদুদ তরফদার জানান, বাংলাদেশে নিযুক্ত নেপাল হাই কমিশনের ডেপুটি চিফ অব মিশন কুমার রাইয়ের নেতৃত্বে চার সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল দুপুর সোয়া ১২টায় মোংলা বন্দরে আসেন। এরপর বন্দর কর্তৃপক্ষের সভা কক্ষে বন্দরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে দীর্ঘ দুই ঘণ্টার বৈঠকে মিলিত হন তারা।
নানা রকম সুযোগ সুবিধা দেখে চলমান এ বৈঠকে মোংলা বন্দর থেকে নেপালে কিভাবে পণ্য রপ্তানি করা যায় সে ব্যাপারে এ বন্দর ব্যবহারে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন নেপালের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। তারা বর্তমানে ভারতের হলদিয়া বন্দর ব্যবহার করে থাকেন। এখন থেকে তারা মোংলা বন্দর ব্যবহার করতে বৈঠকে আলোচনা করেন।

এর আগে ২০১১ সালে বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও ভুটান এই চার দেশ নিজেদের মধ্যে ব্যবসা বাণিজ্য প্রসার ঘটাতে ট্রানজিট চুক্তি হয়। চুক্তির পর এবারই প্রথম মোংলা বন্দর ব্যবহারের আনুষ্ঠানিক সফরে এলো নেপাল।

নেপালকে ট্রানজিট সুবিধা দিলে মোংলা বন্দর অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হবে উল্লেখ করে মোংলাবন্দর কর্তৃপক্ষের সদস্য (হারবার ও মেরিন) ক্যাপ্টেন এম. আব্দুল ওয়াদুদ তরফদার আরও বলেন, তারা এই বন্দরের জেটিসহ বিভিন্ন স্থাপনা পরিদর্শন করে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। বিকালে মোংলাবন্দর ত্যাগ করেন নেপালের প্রতিনিধি দলটি।