জাতীয় আয়কর দিবস আজরিটার্ন দাখিলের সময় বাড়াতে এনবিআরকেআগামীকাল শেষ দিন, রিটার্ন জমা দিতে কর অঞ্চলে ভিড়করদাতা ও গ্রহীতার সম্পর্ক বন্ধুত্বপূর্ণ হতে হবেঢাকা উত্তরে করের বোঝা চেপেছে মানুষের ওপর
No icon

শুল্ক–কর আদায়ে রেকর্ড

দেশের সবচেয়ে বড় শুল্ক;কর আদায়কারী সংস্থা চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসে রেকর্ড পরিমাণ রাজস্ব আদায় হয়েছে। গত অর্থবছরে (২০২১–২২) চট্টগ্রাম কাস্টমস ৫৯ হাজার ২৫৬ কোটি টাকা আদায় করেছে।আন্তর্জাতিক বাজারে পণ্যমূল্য বৃদ্ধির কারণে শুল্ক কর আদায় বেড়েছে। আবার কিছু পণ্যের ট্যারিফ মূল্য বৃদ্ধির কারণে রাজস্ব আদায় বেড়েছে। চট্টগ্রাম কাস্টম হাউস সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে দেশের সিংহভাগ আমদানি রপ্তানি কার্যক্রম পরিচালিত হয়। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) প্রাথমিক হিসাব বলছে, গত অর্থবছরে তিন লাখ কোটি টাকার মতো রাজস্ব আদায় হয়েছে। সেই হিসাবে, এনবিআরের মোট রাজস্ব আদায়ের এক পঞ্চমাংশ এসেছে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউস থেকে।

গত বছরের শেষ দিকে আন্তর্জতাতিক বাজারে জ্বালানি তেল, ভোজ্যতেল, ইস্পাতসহ বিভিন্ন পণ্যের দাম বাড়তে থাকে। এ কারণে শুল্কায়ন প্রক্রিয়ার ভিত্তিমূল্যও বেড়ে যায়। এতে আমদানি পর্যায়ে শুল্ক কর আদায় বৃদ্ধি পায়। আমদানি পর্যায়ে সারা বছর শুল্ক কর আদায়ে ২০ শতাংশের বেশি প্রবৃদ্ধি ছিল।চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসে এবার রাজস্ব আদায়ে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১৫ শতাংশের মতো। ২০২০ ২১ অর্থবছরে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউস ৫১ হাজার ৫৭৬ কোটি টাকা আদায় করেছে। অর্থাৎ আগেরবারের চেয়ে গত অর্থবছরে ৭ হাজার ৬৮০ কোটি টাকা বেশি আদায় হয়েছে।এ বিষয়ে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের কমিশনার ফখরুল আলম  বলেন, সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের বকেয়া পাওয়া গেলে শুল্ক কর আদায়ের প্রবৃদ্ধিতে রেকর্ড হবে। তখন শুল্ক কর আদায়ে প্রবৃদ্ধি হবে ২২ শতাংশের বেশি। বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের কাছে চার হাজার কোটি টাকা বকেয়া পড়ে আছে। এসব প্রতিষ্ঠান মালামাল খালাস করে নিয়ে গেছে।