চলতি বছরে মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৮ দশমিক ৫৭ শতাংশেআগামী ২০২৩-২৪ অর্থবছরে চলতি বছরের লক্ষ্যমাত্রার অতিরিক্ত ৬৫ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আয় করতে হবে ঋণদাতাদের আশ্বস্ত করতে জামানত হিসেবে তাদের স্টক দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে আদানি গোষ্ঠীরাজস্ব খাতে সংস্কার এখন অপরিহার্য হয়ে গেছেবাংলাদেশ প্রবৃদ্ধির পালে হাওয়া লেগেছে: টাইম ম্যাগাজিন
No icon

আয়কর রিটার্ন জমা সাড়ে ২৮ লাখ

দেশে যখন অর্থনৈতিক সংকট চলছে, উচ্চ মূল্যস্ফীতির জেরে কমেছে প্রকৃত আয়। মধ্যবিত্ত থেকে উচ্চমধ্যবিত্ত বাজার নিয়ে হা-হুতাশ করছে, সে সময়ে এসেও আয়কর রিটার্ন দাখিলে ভালো সাড়া পাওয়া গেছে।জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) তথ্য মতে, এ বছর আয়কর রিটার্ন জমা দিয়েছেন ২৮ লাখ ৫১ হাজার করদাতা। এতে আয়কর এসেছে চার হাজার ১০০ কোটি টাকা।গত বছর এই সময় পর্যন্ত রিটার্ন জমা পড়েছিল প্রায় ২৩ লাখ। বিপরীতে আয়কর এসেছিল তিন হাজার ২৮১ কোটি টাকা। এবার আয়কর রিটার্ন দাখিলে গত বছরের চেয়ে ২৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন হয়েছে। রাজস্ব আদায়ে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ২৫ শতাংশ।এনবিআরের কর্মকর্তারা বলছেন, বর্তমানে দেশে প্রায় ৮০ লাখ টিআইএনধারী আছেন। তার মধ্যে এখন পর্যন্ত রিটার্ন জমা দিয়েছেন ২৮ লাখ ৫১ হাজার করদাতা। রিটার্ন দাখিলের জন্য সময় বৃদ্ধির আবেদন জমা দিয়েছেন আরো দুই লাখ ৫০ হাজারের বেশি করদাতা। তাঁরা সবাই রিটার্ন দাখিল করবেন বলে আশা করছে এনবিআর। এনবিআর সূত্রে জানা গেছে, প্রতিবছর নভেম্বর মাসকে আয়কর রিটার্ন দেওয়ার মাস বা সেবা মাস হিসেবে পালন করে এনবিআর।