ভুটানের সঙ্গে শুল্কমুক্ত বাণিজ্য শুরু হচ্ছেকাস্টমস অটোমেশন ন্যাশনাল টেকনিক্যাল টিম গঠন করল এনবিআর তিন লাখ কোটি টাকার বেশি রাজস্ব সংগ্রহ করেছে এনবিআরবাংলাদেশে বিনিয়োগে বড় বাধা দুর্নীতি : যুক্তরাষ্ট্র ই–কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছ টাকা পাননি গ্রাহকেরা
No icon

কর কর্তন প্রত্যাহার চান জ্যেষ্ঠ নাগরিকরা

সঞ্চয়পত্র স্কীমে বিনিয়োগ করা অর্থ থেকে প্রাপ্ত মুনাফার ১০ শতাংশ কর হিসেবে কর্তনের নীতিমালা প্রত্যাহার চান জ্যেষ্ঠ নাগরিকরা। তাদের পক্ষে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের সাবেক পরিচালক এ এস এম বজলুল হক প্রধানমন্ত্রী বরাবর এ ব্যাপারে আবেদন জানিয়েছেন। আবেদনপত্রে বলা হয়েছে, অধিকাংশ জ্যেষ্ঠ নাগরিকরা সঞ্চয়পত্র স্কীমের নির্ধারিত বিনিয়োগ পরিসীমার মধ্যে অর্থ বিনিয়োগ করে তা থেকে অর্জিত মুনাফা দিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। তাদের দীর্ঘমেয়াদী ও ব্যয়বহুল চিকিৎসা, যাতায়াত ও অন্যান্য ব্যয় কম বয়সীদের তুলনায় অনেক বেশি। তাছাড়া নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের বাজার মূল্যের সঙ্গে সামঞ্জস্যতা রেখে সঞ্চয়পত্র বিনিয়োগকৃত অর্থ থেকে প্রাপ্ত সীমিত মুনাফা দিয়ে জীবিকা নির্বাহে নাভিশ্বাস উঠেছে।

বাস্তবতার এই কঠিন বিষয়টি বিবেচনা করে জ্যেষ্ঠ নাগরিকদের সঞ্চয়পত্র স্কীমে বিনিয়োগ সীমা বৃদ্ধি ও প্রাপ্ত মুনাফা থেকে ১০ শতাংশ কর কর্তন প্রত্যাহার করা হোক। এতে বয়োবৃদ্ধ সমাজের একটি বড় অংশ মূল্যস্ফতির ধাক্কা সামাল দিয়ে তাদের জীবন-জীবিকা ন্যুনতম পর্যায়ে পরিচালনা করে জাতীয় অর্থনীতিতে অবদান রাখার সুযোগ পাবে। আবেদনপত্রে আরও বলা হয়েছে, সরকারের জন্য এই খাতে উৎসে কর্তনকৃত করের পরিমাণ অতি নগন্য; কিন্তু ব্যক্তি পর্যায়ে এর প্রভাব অনেক বড়। এই দাবি পূরণ হলে বয়োজ্যেষ্ঠদের প্রাণে আশার আলো সঞ্চারিত হবে। চিকিৎসা ও জীবিকা ব্যয় নির্বাহ করে তারা অনেকটা অনটনহীন এবং স্বস্তিদায়ক জীবন যাপনে সক্ষম হবে ।

এতে আরও বলা হয়, অভ্যন্তরীণভাবে সংগৃহীত বিনিয়োগ তহবিল গঠনের বহুবিধ স্কীমের মধ্যে সঞ্চয়পত্র খাতে বিনিয়োগ স্কীমটি বহুল সমাদৃত ও সুরক্ষিত। সঞ্চয়পত্র বিনিয়োগ স্কীমে বয়সভেদে বাংলাদেশের আপামর জনগণ নির্দিষ্ট মাত্রায় অর্থ বিনিয়োগ করতে পারে; যার মধ্যে ৬৫ বছর অথবা তদোর্ধ্ব বয়সের সিনিয়র সিটিজেনদের অর্থ বিনিয়োগও অর্ন্তভুক্ত।