আবারও ভোজ্যতেলের ভ্যাট ১৫ শতাংশপ্রত্যক্ষ কর বাড়ানোর সুপারিশ মেট্রো চেম্বারেরউচ্চ মূল্যস্ফীতির কারণে বৈশ্বিক মন্দার আশঙ্কা উৎসে কর কর্তন: ব্যাখ্যা চেয়ে এনবিআরকে তিন ব্যাংকের চিঠিমিয়ানমারের অর্থনীতি পতনের দ্বারপ্রান্তে
No icon

খুচরা পর্যায়ে ভ্যাট আদায়ে যুক্ত হচ্ছে এজেন্ট

সঠিকভাবে খুচরা পর্যায় থেকে মূল্য সংযোজন কর বা ভ্যাট সংগ্রহ করতে এজেন্ট যুক্ত করতে যাচ্ছে এনবিআর। এজেন্টের মাধ্যমে খুচরা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ইলেকট্রনিক ফিসক্যাল ডিভাইস (ইএফডি) ও সেলস ডাটা কন্ট্রোলার (এসডিসি) বসানো হবে। এজেন্ট প্রতিষ্ঠান ইএফডি ও এসডিসি মেশিনের কার্যক্রম মনিটর, কারিগরি সমস্যার সমাধান ও প্রয়োজনে প্রতিস্থাপন করবে।এনবিআরের সদস্য (মূসক বাস্তবায়ন) ড. মইনুল খান বলেন, জিডিপির বড় অংশ আসে খুচরা ব্যবসা থেকে। কিন্তু এ খাত থেকে সে অনুযায়ী রাজস্ব সংগ্রহ হচ্ছে না। এ কারণে ভ্যাট সংগ্রহ ব্যবস্থায় সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সব সিটি করপোরেশন ও জেলা শহরে ইএফডি বা এসডিসি মেশিন বসানো হবে। তিনি বলেন, অনেক জায়গায় সমানভাবে মনিটর করা সম্ভব হয় না। এ জন্য ইএফডি ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি নিয়ে নতুন করে চিন্তাভাবনা হচ্ছে, রেভিনিউ শেয়ারিংয়ের মাধ্যমে মনিটর ও রক্ষণাবেক্ষণ করা হবে। আগামীতে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিস্তারিত জানানো হবে।

ভ্যাট আইন অনুযায়ী, গ্রাহকের দেওয়া ভ্যাট দোকান মালিকরা সংগ্রহ করে নির্দিষ্ট সময় পর সরকারি কোষাগারে জমা দেওয়ার কথা। অন্যদিকে পণ্য বা সেবা বিক্রির তথ্য ও করের পরিমাণ স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংরক্ষণের পদ্ধতি হচ্ছে ইএফডি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম। গত ৩১ আগস্ট পর্যন্ত ঢাকা ও চট্টগ্রামে ৭ হাজার ৩৫৬টি প্রতিষ্ঠানে ৭ হাজার ৭৮৯টি ইএফডি ও এসডিসি মেশিন স্থাপন করা হয়েছে। গত আগস্টে এসব মেশিনে ৩০ লাখ ইনভেয়েসের বিপরীতে ৩৭ কোটি ৬১ লাখ টাকা ভ্যাট সংগ্রহ হয়েছে। এ মেশিন এনবিআরের সার্ভারের সঙ্গে সরাসরি যুক্ত। এর মাধ্যমে পণ্য বা সেবার কেনাবেচার বিল করা হলে তার তথ্য তাৎক্ষণিকভাবে এনবিআরের সার্ভারে চলে আসে। ফলে একবার ইএফডিতে তথ্য ইনপুট দেওয়া হলে তথ্য গোপন করার সুযোগ থাকে না।

এনবিআরের সংশ্নিষ্টরা জানিয়েছেন, এ বছর ইএফডি মেশিন বসানোর কার্যক্রমে বিশেষ জোর দেওয়া হয়েছে। সারাদেশের ১২টি ভ্যাট কমিশনারেটের অধীনে নতুন মেশিন বসানো হবে। এ জন্য এনবিআর ৩ লাখ মেশিন কেনার উদ্যোগ নিয়েছে। এরই মধ্যে অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি এগুলো কেনার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে। এখন সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির পরবর্তী বৈঠকে প্রস্তাবটি অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হবে। চলতি অর্থবছরেই সারাদেশে এসব মেশিন স্থাপন করার পরিকল্পনা রয়েছে।২০১৯ সালে ইএফডি চালুর আগে ইলেকট্রনিক ক্যাশ রেজিস্ট্রার (ইসিআর) চালু হয়। এতে ব্যবসায়ীদের বিশেষ সাড়া পাওয়া যায়নি। এরপর পণ্য ও সেবা বেচাকেনায় স্বচ্ছতা আনতে এবং ভ্যাট ফাঁকি কমাতে ইসিআরের উন্নত সংস্করণ ইএফডি চালু করা হয়। কয়েকটি খাতে এ মেশিন ব্যবহার বাধ্যতামূলকও করা হয়। কিন্তু যথাযথ মনিটর ও ব্যবসায়ীদের আন্তরিকতার অভাবে এ কার্যক্রমও তেমন সফল হয়নি। অভিযোগ রয়েছে, হাতে গোনা কিছু প্রতিষ্ঠান ছাড়া বেশিরভাগই এ যন্ত্র ব্যবহার করে না। আবার অনেক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ভ্যাটের নিবন্ধনই নেই। অনেকের ভ্যাটের নিবন্ধন আছে; কিন্তু বিক্রির তথ্য গোপন করে তাঁরা সংগ্রহ করা ভ্যাট সরকারের কোষাগারে জমা দিচ্ছেন না। এ অবস্থায় সিটি করপোরেশন ও জেলা শহরের যেসব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে নিয়ম অনুযায়ী ভ্যাট সংগ্রহ হওয়া উচিত, সেখানে স্বয়ংক্রিয় যন্ত্র বসানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে।